দেবহাটায় দখলে নিতে ঘের মালিক ও সাবেক সেনা সদস্যসহ পাঁচজনকে কুপিয়ে জখম

ডেস্ক রিপোর্ট: সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় ব্যক্তি মালিকানাধীন ঘের দখলে নিতে ঘের মালিকসহ একই পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় সন্ত্রাসীদের কবল থেকে রেহাই পায়নি চার বছরের শিশু সাফিনও। কুপিয়ে মাথা দুই ভাগ করে দেওয়া হয়েছে ঘের মালিক ও সাবেক সেনা সদস্য হায়দার আলীর। পা ভেঙে দেওয়া হয়েছে গৃহবধূ সোনিয়া খাতুনের।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) বিকালে দেবহাটা উপজেলার পুষ্পকাটি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

আহত হায়দার আলীর ভাগ্নে জুসি জানান, বিকালে তার মামা হায়দার আলী, মামী শিরিনা হায়দার, ছোট মামা গোলাম মোস্তফা টুটুল, ছোট মামী সোনিয়া খাতুন ও তাদের চার বছরের ছেলে সাফিন ঘের এলাকায় গেলে স্থানীয় সন্ত্রাসী ও ঘেরের জবরদখলকারী আলিপুরের আকবার আলীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান বকুল, মাসুদ, বাবু, আলিপুরের মৃত হবি সরদারের ছেলে জাহাঙ্গীর, পুষ্পকাটির শহীদ, আলিপুর চেকপোস্টের রবসহ আরও কয়েকজন রাম দা, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা হায়দার আলীকে তাড়িয়ে ধরে উপর্যুপরি কুপিয়ে মাথা দুই ভাগ করে দেয়। পিটিয়ে পা ভেঙে দেয় সোনিয়া খাতুনের। এছাড়া চার বছরের শিশু সাফিন, শিরিনা হায়দার ও গোলাম মোস্তফা টুটুলকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করা হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হায়দার আলী ও শিরিনা হায়দারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, সন্ত্রাসীরা ওই ঘের দীর্ঘদিন জবরদখল করে খাচ্ছিল। পরে মামলা করলে রায় আমাদের পক্ষে আসে। তারপর প্রতিপক্ষ হাইকোর্টে আপিল করলেও তার রায়ও আমাদের পক্ষে আসে। কিন্তু তারা কোনভাবেই জমি ছাড়তে চায়না।

দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব সাহা জানান, ঘটনাটি শুনে ফোর্স পাঠানো হয়েছিল। আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *