শনিবার , ১১ মার্চ ২০২৩ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. English
  2. অনুষ্ঠানসমূহ
  3. অর্থ বাণিজ্য
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম
  6. ক্যারিয়ার
  7. খুলনা
  8. খেলা
  9. চট্টগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. ঢাকা
  12. তথ্যপ্রযুক্তি
  13. পরিবেশ
  14. ফটো গ্যালারি
  15. বরিশাল

আ.লীগ দেয় উন্নয়ন, বিএনপি দেয় দুর্নীতি-সন্ত্রাস: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবেদক
the editors
মার্চ ১১, ২০২৩ ৭:৫০ অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকারে থেকে মানুষকে দিয়েছে উন্নয়ন। অপরদিকে বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়া মানেই হচ্ছে মানুষের ওপর অত্যাচার, শোষণ, বঞ্চনা, লুট, সন্ত্রাস আর দুর্নীতি।

শনিবার ময়মনসিংহের ঐতিহাসিক সার্কিট হাউস মাঠে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘তথাকথিত বিরোধী দল মিথ্যা বলে বলে স্বাধীনতার সুফল ব্যর্থ করতে চায়। লাখো শহীদের রক্তে পাওয়া স্বাধীনতা ব্যর্থ হতে দেয়া যায় না। কেউ ব্যর্থ করতে পারবে না। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলব।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির কোনো এক নেতা সারাদিন মাইক লাগিয়ে বসে থাকে। বাংলাদেশটাকে নাকি আমরা ধ্বংস করে দিয়েছি। আমরা নাকি কিছুই পারিনি। আজ যে ডিজিটাল বাংলাদেশ হয়েছে, এর বদৌলতেই তো তারা এখন দূরে বসেও দেশের মানুষের কথা বলে, রাজনীতি করে, সবই করে।

‘আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়িয়েছি, বিদ্যুৎ দিয়েছি বলেই তো আজকে কথা বলার সুযোগ পাচ্ছে। আর যদি ডিজিটাল বাংলাদেশ না করতাম, বিদ্যুৎ উৎপাদন না বাড়াতাম, তাহলে এতো কথা মাইকে আসতো কিভাবে? আমাদেরই করা জিনিস ব্যবহার করে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে যাচ্ছে।

ময়মনসিংহবাসী আপনাদের কাছে জিজ্ঞেস করি- এই যে ৭৩টি প্রকল্পের উদ্বোধন এবং সব মিলিয়ে ১০৩টি প্রকল্প, এগুলো কি ধ্বংসের নমুনা? আসলে মিথ্যা বলা ওদের বেসাতি।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ১৯৯৬ সালে সরকার গঠন করে। আমরা ২০০১ সালে যখন ক্ষমতা হস্তান্তর করি তখন ২৬ লাখ টন খাদ্য মজুত রেখে যাই। এরপর বিএনপি ক্ষমতায় এসে আবার বাংলাদেশকে খাদ্য ঘাটতির দেশে পরিণত করে।

‘২০০৯ সালে আবার যখন সরকার গঠন করি, তখন দেখি সেই ২৬ লাখ টন খাদ্য ঘাটতি। তবে, সেই ঘাটতি কাটিয়ে আমরা এখন খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশ। দেশে এখন আর খাদ্য ঘাটতি নেই। ২১ লাখ টন খাদ্য এখন মজুত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে মানুষের কল্যাণে কাজ করে। দেশের একটি মানুষও যেন ভূমিহীন না থাকে সে জন্য কাজ করছি। আমাদের এটাই লক্ষ্য ছিল এবং আমরা সেটা করে দেখিয়েছি। গৃহহীন বা ভূমিহীন মানুষ এখন একটা ঠিকানা পাচ্ছে- এর চেয়ে বড় কাজ আর কিছু হতে পারে না।

‘প্রত্যেকের ঘরে ঘরে আমরা বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছি। নতুন নতুন স্কুল করেছি। ২৬ হাজার নতুন প্রাইমারি স্কুল সরকারিকরণ করেছি। আজকে সাক্ষরতার হার ৭৫ দশমিক ২ শতাংশ।’

বঙ্গবন্ধু-কন্যা বলেন, ‘জাতির পিতা দেশ গড়ার জন্য সময় পেয়েছিলেন ৩ বছর ৭ মাস ৩ দিন। তিনি এ সময়ের মধ্যে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে গড়ে তোলার কাজ করেন। সংবিধান প্রণয়ন করেন। কিন্তু স্বাধীনতার শত্রুরা তাকে সময় দেয়নি।

‘আমার একটাই লক্ষ্য, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন তা বাস্তবায়ন করা। এর অংশ হিসেবে আমি ময়মনসিংহবাসীর জন্য ৭৩টি উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে এসেছি। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা ৩০টি প্রকল্পের।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর ময়মনসিংহ বিভাগ করে দিয়েছি। প্রতিটি বিভাগের মতো এ বিভাগে মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হবে, একটি পৃথক ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় করে দেব। আরও অনেক কিছু করতে পারতাম। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে অনেক কিছু সম্ভব হয়নি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০৪১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে। আমাদের জনগোষ্ঠী ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষা গ্রহণ করবে, স্মার্ট জনগোষ্ঠী হিসেবে গড়ে উঠবে। আমাদের অর্থনীতি, কৃষি, স্বাস্থ্য হবে স্মার্ট। তৃণমূল পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের উন্নত জীবন হবে। প্রতিটি গ্রামের মানুষ শহরের নাগরিক সুবিধা পাবে।

‘বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে। এই মর্যাদা ধরে রেখে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।’

বঙ্গবন্ধু-কন্যা বলেন, ‘আমার তো চাওয়া-পাওয়ার কিছু নেই। বাবা-মা, ভাই সব হারিয়েছি। ১৯৮১ সালে বাংলাদেশে ফিরে এসেছিলাম নিঃস্ব, রিক্ত হয়ে। কোথায় থাকব, কিভাবে চলব- এসব নিয়ে চিন্তা করিনি।

‘শুধু একটা চিন্তা করেছি- এই দেশ আমার বাবা স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। এদেশের মানুষের ভাগ্য গড়তে হবে। এদেশের মানুষকে দারিদ্র্য থেকে মুক্তি দিতে হবে। গৃহহীন মানুষ ঘর দিতে হবে, চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে, শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। মানুষকে উন্নত জীবন দিতে হবে। স্বাধীনতার সুফল প্রতিটি ঘরে পৌঁছে দিতে হবে। আমরা সে লক্ষ্যেই কাজ করছি।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ - জাতীয়

error: Content is protected !!